বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২nd নভেম্বর ২০১৪

হাইব্রিড রাইস বিভাগের চলমান গবেষণা কার্যক্রম

ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার ভবিষ্যৎ চাহিদা পূরণে হাইব্রিড ধান গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। এই সম্ভাবনাময় পরিস্থিতি মোকাবেলার প্রেক্ষিতে হাইব্রিড ধান গবেষণার চলমান কার্যক্রম-
•    কাটারীভোগ বা প্রিমিয়াম গুনাগুন সম্পন্ন হাইব্রিড ধানের জাত উদ্ভাবন।
•    আউশ ও রোপা আমন মৌসুমের জন্য উপযোগী হাইব্রিড ধানের জাত উদ্ভাবন।
•    উচ্চ অ্যামাইলেজ এবং অধিক ফলনশীল স্বল্প জীবনকাল সম্পন্ন জাত উদ্ভাবন।
•    সম্ভাবনাময় আগাম জাত সমূহের এফ১ (F1) বীজ উৎপাদনের কলাকৌশল উদ্ভাবন।
•    সম্ভাবনাময় হাইব্রিড জাতের মাতৃ সারির (CMS lines) সমূহের বীজ উৎপাদনের ক্ষেত্রে সারির অনুপাত এবং জিবারেলিক এসিড (GA3) প্রয়োগের মাত্রা নির্ধারণ।
•    পিতৃ সারি পিতৃ সারি সংকরায়নের মাধ্যমে কৌলিক বৈশিষ্ট্যর উন্নয়ন সাধন।
•    উর্বরতা সংরক্ষক সারি ও উর্বরতা সংরক্ষক সারির মধ্যে সংকরায়নের মাধ্যমে কৌলিক বৈশিষ্ট্যর উন্নয়ন সাধন।
•    ব্রি উদ্ভাবিত স্থানীয় এবং অগ্রগামী সারি সমূহের সাইটোপ্লাজমিক (cytoplasmic diversity) বিভিন্নতা পরীক্ষাকরণ।
•    আউট ক্রসিং (out crossing) হারের উপর ভিত্তি করে উৎকৃষ্ট মাতৃসারি, উর্বরতা সংরক্ষক সারি ও পিতৃ সারি সমূহের ফুলের বৈশিষ্ট্যায়ন (floral biology) পরীক্ষা করা।
•    স্থানীয় এবং ব্রি উদ্ভাবিত অগ্রগামী সারি সমূহের মধ্যে ব্যাকটেরিয়াল বস্নাইট (BLB) প্রতিরোধী সারি বাছাইকরণ (Screening)।
•    ব্রি উদ্ভাবিত অগ্রগামী সারি সমূহ হতে পরীক্ষণ সংকরায়ণ (test crossing) এর মাধ্যমে উর্বরতা সংরক্ষক সারি ও পিতৃ সারি বাছাইকরণ (screening)।
•    পশ্চাৎ সংকরায়ণ পদ্ধতি (back cross breeding methods) এর মাধ্যমে নতুন উর্বরতা সংরক্ষক সারি থেকে নতুন মাতৃসারিতে রূপান্তর।
•     কৃত্রিম অনুজীব সংক্রমন (inoculation of pathogens) এর মাধ্যমে রোগ প্রতিরোধী পিতৃ-মাতৃ সারি ((parental lines) সনাক্তকরন।
•    ব্রি উদ্ভাবিত পিতৃ-মাতৃ সারি (parental lines) সমূহের দানার গুনাগুন নির্ধারণ করা।
•    ব্রি অবমুক্তকৃত হাইব্রিড ধানের জাত সমূহের সুস্থিতি (stability) নির্ধারণ।
•    নিউক্লিয়াস বীজ উৎপাদন পদ্ধতির মাধ্যমে ব্রি অবমুক্তকৃত হাইব্রিড ধানের জাত সমূহের পিতৃ-মাতৃ সারি (parental lines) সমূহের বিশুদ্ধকরণ।
•    সম্ভাবনাময় আগাম জাত সমূহের জীবনকালের বিভিন্নতা (growth duration) এবং পাতার সংখ্যা গণনা পদ্ধতির (leaf number counting method) মাধ্যমে পিতৃ-মাতৃ সারির (parental lines) জীবনকাল নির্ধারণ।
•    সি এম এস ম্যাইনটেন্যন্স এন্ড ইভালুয়েশন (CMS maintenance and evaluation nursery) নার্সারীতে হ্যান্ড ক্রসিং (hand crossing) এর মাধ্যমে মাতৃসারির কৌলিক বিশুদ্ধতা রক্ষা করা ।
•    পরবর্তী মৌসুমে ব্যবহারের জন্য সম্ভাবনাময় মাতৃসারি এবং হাইব্রিড জাত (hybrid combinations) সমূহের ক্ষুদ্র পরিসরে মাতৃসারি এবং F1 হাইব্রিড ধান বীজ উৎপাদন।
•    প্রচলিত এবং মলিকুলার পদ্ধতির মাধ্যমে ব্রি উদ্ভাবিত প্যারেন্টাল লাইন সমূহের কৌলিক বিভিন্নতা পরীক্ষণ।
•    সম্ভাবনাময় হাইব্রিড জাত সমূহের কম্বাইন অ্যাবিলিটি (combining ability) নির্ধারণের মাধ্যমে পিতৃ ও মাতৃ সারির কম্বাইন অ্যাবিলিটির ধরণ নির্ধারন করা।
•    পিতৃ ও মাতৃ সারির হাত সংকরায়ণ (hand crossing) এর মাধ্যমে নমুণা পরীক্ষণ হাইব্রিড ধান (Experimental hybrid) উৎপাদন।
•    প্রাতমিক ফলন পরীক্ষা (PYT), সেকেন্ডারী ফলন পরীক্ষা (SYT), আঞ্চলিক ফলন পরীক্ষা (RYT) এবং মাল্টিলোকেশন ট্রায়াল (MLT) এর মাধ্যমে সম্ভাবনাময় হাইব্রিড সমূহের ফলন পরীক্ষার মাধ্যমে উপযুক্ত জাত বাছাইকরণ।
•    ব্যক্তিগত ও কৃষক পর্যায়ে কার্যকরী হাইব্রিড ধান (F1) বীজ উৎপাদনের কলা কৌশল উদ্ভাবন ও উৎপাদিত হাইব্রিড বীজের বিপনন ব্যবস্থায় সরকারী ও বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের মধ্যে যোগসূত্র তৈরী করা।


Share with :