বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১st সেপ্টেম্বর ২০১৫

ফলিত গবেষণা বিভাগের সাফল্য

  1. মোট প্রায় ২৫০টি অগ্রগামী সারি/জাত নিয়ে বাংলাদেশের বিভিন্ন কৃষি-পরিবেশ অঞ্চলে কৃষকের মাঠে অগ্রগামী সারির উপযোগীতা পরীক্ষা বাস্তবায়ন করা হয়েছে। পরীক্ষালব্ধ ফলাফল এবং কৃষক ও সম্প্রসারণ কর্মীর মতামতের আলোকে  ভাল ও উপযুক্ত অগ্রগামী কৌলিক সারীগুলোর পরবর্তী প্রস্তাবিত পরীক্ষা বাস্তবায়নের  সুপারিশ করা হয়েছে। এ প্রক্রিয়ার  মাধ্যমে উক্ত সময়ের ব্রি উদ্ভাবিত জাতসমূহ অবমুক্ত  করা হয়েছে।
  2. উক্ত সময়ের মধ্যে বিভিন্ন মৌসুমে সারাদেশে কৃষকের মাঠে মোট প্রায় ৩৫০০টি ’’বীজ উৎপাদন এবং সম্প্রসারণ কর্মসূচী’’ (এসপিডিপি), প্রদর্শনী বাস্তবায়ন করা হয়েছে এবং মোট প্রায় ৬০০০ টন ধান উৎপাদিত হয়েছে। উক্ত ধান থেকে কৃষকগন পরবর্তী মৌসুমে আবাদের জন্য প্রায় ১৫০০ টন ধান (মোট উৎপাদনের প্রায় ২৫%) বীজ হিসাবে সংরক্ষণ করেছে। এ কর্মসূচী অত্যন্ত ফলপ্রসু এবং দ্রুত জাত বিস্তারে অত্যন্ত কার্যকরী ভূমিকা পালন করছে।
  3. এসপিডিপি প্রদর্শনীর সাথে অন্যান্য ধান-ভিত্তিক প্রযুক্তিসমূহ যেমন গুটি ইউরিয়া, এলসিসি, এডব্লিউডি, ড্রামসীডার, পোল্ট্রি ম্যানিয়ুর ইত্যাদি প্রদর্শনী বাস্তবায়ন করা হয়েছে। জাত বিস্তারের সাথে সাথে এ সকল প্রযুক্তিসমূহও কৃষক গ্রহন করছে।
  4. বিভিন্ন মৌসুমে সারাদেশে মোট ৫০০টি কৃষক প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়েছে। এ সকল প্রশিক্ষণে মোট প্রায় ১৫০০০ জন কৃষক এবং ২৫০০ জন  সম্প্রসারণ কর্মী (বিএস, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা) অংশগ্রহন করেছেন।
  5. উক্ত সময়ের মধ্যে আউশ, আমন এবং বোরো মৌসুমে বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় মোট প্রায় ৪০০টি মাঠ দিবস বাস্তবায়ন করা হয়েছে। ঐ সকল অনুষ্ঠানে বিভিন্ন পর্যায়ের বিজ্ঞানী, স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তি, প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তা, স্থানীয় নেতৃবৃন্দ, সম্প্রসারণবীদ এবং কৃষকগণসহ সর্বমোট প্রায় ৫৫০০০ জন অংশগ্রহণ করেন।
  6. উক্ত সময়ে ফলিত গবেষণা বিভাগ প্রায় ৩০টি কৃষি মেলায় অংশগ্রহণ করে যার মাধ্যমে আমাদের প্রযুক্তিসমূহের ব্যপক প্রচার এবং সম্প্রসারণ হয়েছে।
  7. উক্ত সময়ে ফলিত গবেষণা বিভাগ আউশ, আমন এবং বোরো মৌসুমে ব্রির গবেষণা মাঠে প্রায় ৬০ টন মানসম্মত বীজ উৎপাদন করে যা পরবর্তীতে ফলিত গবেষণা পরিচালিত বিভিন্ন প্রদর্শনী এবং অন্যান্য ট্রায়াল বাস্তবায়নে ব্যবহ্নত হয়। এছাড়াও উক্ত বীজ অন্যান্য বিভাগের গবেষণা কাজেও সরবরাহ করা হয়েছে।


Share with :

Facebook Facebook