বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭

হাইব্রিড রাইস বিভাগের সাফল্য

১। হাইব্রিড রাইস বিভাগ এই পর্যন্ত ৬টি হাইব্রিড ধানের জাত উদ্ভাবন করেছে যা প্রচলিত উফশী জাতের চেয়ে ১৫-২০ ভাগ ফলন বেশী দিতে সক্ষম।
২। এর মধ্যে ৪টি বোরো মৌসুমের ও ২টি আমন মৌসুমের।
৩। অবমুক্ত জাত সমূহের সঠিক বীজ উৎপাদন প্রযুক্তি উদ্ভাবন।
৪। দেশীয় আবহাওয়ায় খাপ খাওয়াতে সক্ষম এ রকম ৩০টি মাতৃ সারি উদ্ভাবন যা আমন ও বোরো মৌসুমে ব্যবহার করা যায়।
৫। ব্রি উদ্ভাবিত অগ্রগামী উফশী সারি থেকে ১০টি পিতৃ সারি সনাক্তকরণ।
৬। পিতৃ সারি পিতৃ সারি সংকরায়নের মাধ্যমে ৪০টি নতুন পিতৃ সারি উদ্ভাবন।
৭। উর্বরতা সংরক্ষক সারি ও উর্বরতা সংরক্ষক সারির মধ্যে সংকরায়নের মাধ্যমে ৩০টি নতুন উর্বরতা সংরক্ষক সারি উদ্ভাবন।
৮। ব্রি অবমুক্তকৃত হাইব্রিড ধানের জাত সমূহের বীজ উৎপাদনের জন্য সঠিক সারির অনুপাত ও জিএ৩ ব্যবহারের পরিমান নির্ধারণ।
৯। প্রতি বছর বোরো মৌসুমে ব্রি উদ্ভাবিত হাইব্রিড ধান জাতের প্রায় ২ টন হাইব্রিড ও পিতৃ মাতৃ সারির বীজ বিনা মূল্যে সরকারী,  বেসরকারী ও কৃষকদের মাঝে বিতরন।
১০। কৃষি সম্প্রসারণবিদ, এনজিও কর্মকর্তা ও কৃষকদেরকে হাইব্রিড ধানের চাষাবাদ ও বীজ উৎপাদন বিষয়ক প্রশিক্ষণ প্রদান।
১১। বার্ষিক গবেষণা প্রতিবেদন এবং অবমুক্ত জাত সমূহের লিফলেট ও বুলেটিন প্রকাশ।


Share with :